চিতলমারীতে  দরিদ্র বিধবার ধান কেটে দিলেন শিক্ষকরা

চিতলমারী প্রতিনিধি:
বাগেরহাটের চিতলমারীতে মহামারি করোনা দুর্যোগের কারণে শ্রমিক সংকট থাকায় এক দরিদ্র বিধবার ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছেন বাহির দশমহল মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষকমন্ডলী। উপজেলার বাশবাড়িয়া গ্রামের মৃত-প্রসুন মল্লিকের বিধবা স্ত্রী অর্চণা মল্লিকের ১ একর জমির ধান পাকলেও তারকোন পুত্রসন্তান নাথাকায় ও শ্রমিক সংকট থাকায় তিনি তা কাটতে পারছিলেন না। বাহির দশ মহল বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও মৃত- প্রসুন মল্লিকের মেয়ে নিবেদিতা মল্লিক এ বিষয়টি তার প্রধান শিক্ষক সব্যসাচী সরকারকে জানালে তিনি স্কুলের শিক্ষক, শিক্ষিকা ও কর্মচারীদের সাথে নিয়ে শুক্রবার সকাল ৮ টায় ওই শিক্ষার্থীর ধান কেটে দেন।

এ ব্যপারে অর্চনা মল্লিক জানান, তার তিন মেয়ে । কোন ছেলে সন্তান নেই। স্বামী মারা গেছে বেশ কয়েক বছর আগে। দারিদ্র্যের সংসারে শ্রমিক দিয়ে ধান কাটার সামর্থ তার নেই। বিষয়টি জানতে পেরে বাহির দশমহল বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সব্যসাচী সরকার বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষকদের নিয়ে আমার ধান কেটে ঘরে তুলে দেন।

বাহির দশমহল মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সব্যসাচী সরকার বলেন, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে ধান কাটার শ্রমিক সংকট থাকায় শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের নির্দেশের আলোকে তার বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা অসহায় ও দরিদ্র শিক্ষার্থীদের ধান কেটে দিচ্ছেন। ধান কাটা শেষ না হওয়া পর্যন্ত এর ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।

     এ জাতীয় আরো খবর..

আমাদের পত্রিকায় আপনাকে স্বাগতম

লাইভ ভিডিটর

26
Live visitors

সংবাদ খুজছেন… নিচের বক্সে শিরোনাম লিখুন