মোড়েলগঞ্জে ত্রানের তালিকায় মেম্বরের মোবাইল নম্বর !

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক: বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের হোগলাবুনিয়া ইউনিয়নে মানবিক সহায়তার সুবিধাভোগীর তালিকায় প্রনয়নে হয়েছে চরম অনিয়ম। সুবিধাভোগীদের নিজ মোবাইল নম্বরের পরীবর্তে ইউপি মেম্বরের ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর। বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনের নজরে আসলে। মাঠ পর্যায়ে শিক্ষকদের দ্বারা তালিকা সংশোধনী করা হয়েছে।

ত্রাণ বিতরণে ইউপি চেয়ারম্যানের দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে সমন্বয় না থাকায় দেখা দিয়েছে চরম ক্ষোভ। প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে নিজগৃহে অবস্থানকারি কর্মহীন হয়ে পড়া বিভিন্ন শ্রেনীপেশার হতদরিদ্র থেকে শুরু করে নি¤œ আয় ও মধ্যবিত্ত পরিবারের সহায়তা প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনায় মাঠ পর্যায়ে চলছে খাদ্য সামগ্রীসহ বিভিন্ন সহায়তা প্রদান। তারই ধারাবাহিকতায় এ উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় মানবিক সহায়তার তালিকা তৈরি করে পাঠানো হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে এ তালিকা প্রণয়নে চরম অনিয়ম ও ত্রæটি হয়েছে একাধিক ইউনিয়নে। পরবর্তীতে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার নির্দেশনায় তালিকা সংশোধন করে সঠিক তালিকা করে পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, উপজেলার হোগলাবুনিয়া ইউনিয়নের ছোট বাদুরা ৬নং ওয়ার্ডে সুবিধাভোগী রয়েছে ৭৩ জন। সুবিধাভোগী দিনমজুর সেলিম মাতুব্বর, জাকির মৃধা, বকুল বেগম, আলী আকবর মল্লিক, মজিদ শেখ, ইসমাইল শেখ ও ইউনুছ শেখ সহ এ রকম ৯ জন সুবিধাভোগীর তালিকায় ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. রমজান হাওলাদারের ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর বসানো হয়েছে। বাদ পড়েনি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ৩ নেতার মোবাইল নম্বরও।

দিনমজুর শ্রমিক জাকির মৃধা ও সেলিম মাতুকবর বলেন, আইর্ডি কাডের ফটোকপি ও মোবাইল নম্বর নিয়েছে মেম্বর। অথচ আমাদের মোবাইল নম্বর না দিয়ে তার ব্যক্তিগত নম্বর তালিকায় দিয়েছে। পরবর্তীতে ২/৩দিন পরে স্কুল শিক্ষক বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে তাদের মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে সংশোধন করে। মাথাগোজার শুধু পৈত্রিক বসত ভিটাটুকু রয়েছে পরিবারের ভরন পোষনে স্ত্রী, সন্তানদের নিয়ে কোন রকম অন্যের বাড়িতে কাজ করে দিন পার করছেন তারা। ইতোমধ্যে সরকারি কোন সুবিধা পাননী ওই পরিবারগুলো। সদ্য মাত্র মানবিক সহায়তার তালিকায় তাদের নাম হয়েছে।
ওয়ার্ড ইউপি মেম্বর মো. রমজান হাওলাদার বলেন, সুবিধাভোগীদের তালিকায় তার মোবাইল নম্বর দোষ করে দেননি তিনি। তরিগরি করে তালিকা পাঠানোর ক্ষেত্রে এ সমস্যা হয়েছে। পরবর্তীতে তালিকা সংশোধন করে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে এ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণে অনিয়ম ও দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে সমন্বয় হীনতার অভিযোগ তুলে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা। হোগলাবুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বরাবর। একই অভিযোগের অনুলিপি দিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য বাগেরহাট-৪,সহ জেলা নেতৃবৃন্দের কাছে।

এ বিষয়ে ওই হোগলাবুনিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব সরোয়ার হোসেন বলেন, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা উপেক্ষা করে চেয়ারম্যান মো. আকরামুজ্জামান দলীয় নেতাকর্মীদের ওয়ার্ড কমিটিকে ত্রাণ বিতরনে কোথাও রাখছেন না। যে কারনেই এ সব তালিকা নির্নয়ে প্রতিটি ওয়ার্ডেই ত্রুটি হয়েছে।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মো. আকরামুজ্জামান বলেন, দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে ওয়ার্ড কমিটি দ্বারা ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের ক্ষেত্রে তাদের সমন্বয় রয়েছে। আনিত অভিযোগটি সঠিক নয়। ইউপি সদস্যদের মোবাইল নম্বরগুলো সংশোধন করে তালিকা পাঠানো হয়েছে।
এ সর্ম্পকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজ্জামান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক মানবিক সহায়তা বাস্তবায়ন তালিকা প্রনয়নের ক্ষেত্রে প্রথম পর্যায়ে ত্রæটি হলে পরবর্তীতে প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষক দ্বারা বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে তালিকা সংশোধন করা হয়েছে। সুবিধাভোগীরা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে সহায়তা পাবেন। #

     এ জাতীয় আরো খবর..

আমাদের পত্রিকায় আপনাকে স্বাগতম

সংবাদ খুজছেন… নিচের বক্সে শিরোনাম লিখুন