তেরখাদায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৩ লুটপাট ১৫ বাড়ি ভাংচুর

মোল্যা সেলিমআহম্মেদ তেরখাদা : তেরখাদা উপজেলার বারাসাত ও হরিদাসবাটি গ্রামে গতকাল সকাল ৮ টার দিকে সরদার ও ব্যাপারী বংশের মধ্যে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১৩ জন আহত এবং দোকানপাট সহ ১৫ বাড়ি ভাংচুর হয়। সরোজমিনে প্রতক্ষ্যদর্শি ও ভুক্তভোগী সুত্রে জানা যায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সরদার পাড়ার লোকজন বিলে প্রবেশ করলে ব্যাপারী পাড়ার লোকজন তাদের ঘেরাও করে এ সংবাদে দু’পক্ষের লোক মুখোমুখি হলে উভয় পক্ষের ১৩জন আহত হয়। আহতরা হলো নান্নু সরদার, নবাব শেখ, খাজা মোল্যা, মনির মীর, মিজবা সরদার, শিপন সরদার, ফারুক সরদার, মফিজ সরদার, বসার মীর, হাসান ব্যাপারী, কচি মোল্যা, ইঞ্জিল, এরশাদ, শরিফুল গুরুত্বর আহত হলে প্রথমে তাদেরকে তেরখাদা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে নান্নু সরদার, নবাব শেখ, খাজা মোল্যার অবস্থা আশংকা জনক বিধায় তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে ঘরবাড়ী ভাংচুর হয়েছে মোঃ খোকন মোল্যা, আছাদ মোল্যা, মনির মোল্যা, অহিদ মোল্যা, খাজা মোল্যা, নজু মোল্যা, দিনু মোল্যা, জাকার মোল্যা, আছাদ শিকদার, তাকিদ শিকদার, আনোয়ার মোল্যা, জিয়া মোল্যার ঘরবাড়ী। এখবর পেয়ে তেরখাদা থানা প্রশাসন তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিবেশ নিয়ন্ত্রে আনে। বর্তমানে সেখানে থানা পুলিশ টহলরত আছে। এরিপোট লেখা পর্যন্ত তেরখাদা থানায় কোন মামলা দায়ের হয়নি। অপর দিকে বিভিন্ন সুত্রে জানা যায় এঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘটনাস্থল থেকে দেড় কিলোমিটার পূর্বে বারাসাত মধ্যপাড়া আঃ রাজ্জাক মোল্যা ও ইবাদ মোল্যার বাড়ী পুলিশ কর্তৃক ভাংচুরের খবর পাওয়া যায়। সরোজমিনে গিয়ে আঃ রাজ্জাক মোল্যা ও ইবাদ মোল্যার সাক্ষাত কারে জানা যায় তেরখাদা থানা পুলিশ ভাংচুরের ঘটনা ঘটিয়েছে। এবিষয়ে তেরখাদা থানা অফিসার ইনর্জাচ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান আমার কোন ফোর্স এঘটনা ঘটায়নি।

     এ জাতীয় আরো খবর..

আমাদের পত্রিকায় আপনাকে স্বাগতম

সংবাদ খুজছেন… নিচের বক্সে শিরোনাম লিখুন