চিতলমারী প্রতিবন্ধি পরিবারের উপর অত্যাচার

মোঃ একরামুল হক মুন্সী:
চিতলমারী উপজেলায় এক প্রতিবন্ধি পরিবারের উপর অত্যাচার চলছে। মামার উপর্যুপরি আঘাতে ভাগ্নে এখন হাসপাতালে। গ্রামবাসীর মতে, মামা সদাই কাঠা বহিরাগত লোক দিয়ে দরিদ্র ভাগ্নে কৃষ্ণপদ মন্ডলকে (৫০) দফায় দফায় পিটিয়েছেন। শনিবার রাতে তাকে বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। রবিবার পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
গ্রামের প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাতুলকুলের সম্পত্তির বিরোধের জের ধরে মামা সদাই কাঠা দরিদ্র ভাগ্নে কৃষ্ণপদ মন্ডল ও তার পরিবারের উপর নানা অত্যাচার চালাচ্ছে। যাতে সে মাতুলকুলে প্রাপ্ত ৬২ শতক সম্পত্তি ফেলে চলে যায়। উভয়ের বাড়ি পাশাপাশি, গরীবপুর (দড়িউমাজুড়ি)। গ্রামে কৃষ্ণপদ কিছুটা ‘মানসিক ভারসাম্যহীন’ বলে পরিচিত। তার ছেলেও শারিরীক প্রতিবন্ধি। বহিরাগত লোকদের দিয়ে এভাবে দফায় দফায় হামলা করায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে গরীবপুর গ্রামের বাসিন্দারা।
আহত ভাগ্নে কৃষ্ণপদ মন্ডল জানান, শনিবার বিকেলে মাঠ থেকে বাড়ি ফেরার পথে অপরিচিত লোকেরা প্রথমবার পেটায়। দ্বিতীয়বার রাত আটটার দিকে তার বসতঘর হতে বের করে ছয়-সাত জনের একটি দল পিটিয়ে জ্ঞানহীন করে ফেলে চলে যায়।
অপরদিকে, মামা সদানন্দ কাঠা সদাই তার ভাগ্নেকে পেটানো ও অন্যান্য অত্যাচারের কথা অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, গ্রামের কিছু লোক বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের দলাদলির রেশ ধরে ভাগ্নে কৃষ্ণকে দিয়ে সাজানো অভিযোগ করছে।
সন্তোষপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য শ্রীবাস রায় জানান, গ্রামের বাইরের লোকেরা অন্য একটি গ্রামে ঢুকে একজন মানুষকে ধরে বার বার পেটাবে- এটা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।
চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মীর শরিফুল হক জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

     এ জাতীয় আরো খবর..

আমাদের পত্রিকায় আপনাকে স্বাগতম

লাইভ ভিডিটর

26
Live visitors

সংবাদ খুজছেন… নিচের বক্সে শিরোনাম লিখুন