ফিরে দেখা : অকালে ঝরে গেছে যে সকল তাজা প্রাণ

মোঃ একরামুল হক মুন্সী:
বিগত দুইবছরে বাগেরহাটের চিতলমারীতে চাঞ্চল্যকার খুন-গুম, অপহরন এবং আত্মহত্যায় অকালে ঝরে গেছে অনেক তাজা প্রাণ। তাদের মধ্যে রয়েছে উপজেলার শেরে বাংলা ডিগ্রী কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র সবুজ বিশ্বাস। সবুজ নিখোঁজের পর হাত-পা বাঁধা কাঁথায় মোড়ানো লাশ থানার সন্নিকটের একটি ডোবা থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন জেলা পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায়।
উপজেলার মেলার কুল গ্রামের হেমায়েত হোসেনের ছেলে আনোয়ার হোসেন নামের এক বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিখোঁজের দু’দিন পর হাত-পা বাঁধা বস্তাবন্ধি লাশ পাওয়া যায় উপজেলার মাছুয়ারকুল এলাকার একটি মৎস্য ঘেরের মধ্যে থেকে।
উপজেলার খিলিগাতী গ্রামের রুবেল হাওলাদার কে প্রতিপক্ষরা প্রকাশ্যে নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করে । সে বাগেরহাট সরকারী পিসি কলেজের স্নাতক দ্বিতিয় বর্ষের মেধাবী ছাত্র ছিল। জেলা পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সরকারী বঙ্গবন্ধু মহিলা ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ কাওছার আলী তালুকদারের শিশুপুত্র খালিদ তালুকদারের ক্ষত-বিক্ষত লাশ একটি মৎস্য ঘের থেকে উদ্ধার করে পুলিশ । ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন জেলা পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায়।
আত্মহত্যার শিকার হতে হয়েছে সাদিয়া আক্তার নামে এক গৃহ বধুকে। শ্বশুর বাড়ীর একটি ঘরের আড়ায় গলে ফাঁস দেয়া অবস্থায় তার মৃতদেহ উদ্ধর করে থানা পুলিশ। এব্যপারে বিক্ষোভ মিছিল, পথসভা, মানববন্ধন ও স্থানীয় প্রশাসনের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেন এলাকাবাসি। সাদিয়া আক্তারকে প্রবাসী স্বামীর পরিবারের লোকজন হত্যাকরে আত্মহত্যা বলে প্রচার চালায় এই ছিল সাদিয়ার বাবা মায়ের অভিযোগ।
উপজেলার চরশৈলদাহ গ্রামের নবম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী সানজিদা অক্তার মীম বখাটেদের উত্যাক্ততার কারণে নিজ পড়ার রুমের আড়ার সাথে গলে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। সে উপজেলার মুক্তবাংলা চারিপল্লি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রী ছিল। এব্যপারে বিক্ষোভ মিছিল, পথসভাও মানববন্ধন করে তার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবগণ।
এছাড়া এক লম্পট কর্তৃক ফেসবুকে আপত্তিকার ছবি পোষ্ট করায় কলেজ শিক্ষার্থী দিশা নামের এক কিশোরী গাছের ডালে গলে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়। দিশা উপজেলার কালিদাস বড়াল স্মৃতি ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী ছিল। আলোচিত এসকল ঘটনার প্রেক্ষিতে সভা-সমাবেশ, মানববন্ধনও বিক্ষোভ মিছিলসহ নানা কর্মসূচী গ্রহণ করেছেন এলাকার সাধারণ জনগণ।
এছাড়া চিতলমারী হাসিনা বেগম মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীতে পড়ুয়া মেধাবী ছাত্রী তৃষা রহস্যজনক ভাবে তার শয়ন কক্ষের সিলিংফ্যানের সাথে ওড়না বেঁধে গলে ফাঁস লাগিয়ে আত্ম হত্যা করে।

     এ জাতীয় আরো খবর..

আমাদের পত্রিকায় আপনাকে স্বাগতম

সংবাদ খুজছেন… নিচের বক্সে শিরোনাম লিখুন