সুন্দরবনে কুখ্যাত বাঘ শিকারী হাবিব গ্রেপ্তার

সাবেরা ঝর্ণা শরণখোলা (বাগেরহাট) :
সুন্দরবন বিভাগের তালিকাভুক্ত কুখ্যাত বাঘ শিকারী হাবিব তালুকদারকে (৫০) শরণখোলা থানা পুলিশ দীর্ঘদিন চেষ্টার পরে গ্রেপ্তার করেছে।উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের বনসংলগ্ন মধ্য সোনাতলা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। হাবিবের বিরুদ্ধে বাঘ শিকারের তিনটি, হরিণ শিকারের পাঁচটি ও পিরোজপুর কোর্টে একাধিক মামলা রয়েছে। হাবিব গত ২০ বছরে কমপক্ষে ৭০টি বাঘ শিকার করেছে বলে নিজে শিকার করেছে। তার ছেলে ও জামাই’র বিরুদ্ধেও হরিণ শিকারের দায়ে কয়েকটি মামলা রয়েছে।
শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান বলেন, বাঘ হাবিবের নামে শরণখোলা থানায় তিন ওয়ারেন্ট মুলতবি ছিল। তাকে দীর্ঘদিন ধরে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে সোর্সের মাধ্যমে দীর্ঘদিন চেষ্টার পর তাকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
শরণখোলা রেঞ্জ কর্মকর্তা (এসিএফ) মোঃ জয়নাল আবেদীন অন্তরালেকে বলেন, হাবিব তালুকদার বাঘ হাবিব নামে বনবিভাগের তালিকাভুক্ত অপরাধী। তার হাতে গত ২০ বছরে কম করে হলেও ৭০টি বাঘ মারা পড়েছে বলে এর আগে বন বিভাগের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছে। তার নামে বাঘ শিকারের দায়ে ৩টি ও হরিণ শিকারের দায়ে ৫টি সহ পিরোজপুর কোর্টে মামলা একাধকি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে তিনটিতে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে। এছাড়া তার ছেলে হাসান (২২) এর নামে ৩/৪টি ও জামাই মিজান (২৬) এর নামে ৪/৫টি সুন্দরবনে হরিণ শিকারের দায়ে মামলা রয়েছে। বাঘ শিকারী হাবিব বনবিভাগ ও পুলিশে কাছে মোস্ট ওয়ান্টেড। তাকে বহু আগে থেকেই সুন্দরবনে প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। তার পরও গোপনে বনে ঢুকে বন্যপ্রাণি শিকার করেন তিনি। তার নামে অনেগুলো মামলা থাকা স্বত্তে¡ও সুন্দরবনে অপরাধ কর্মকান্ড চালিয়ে আসছেন। এর পেছনে একাধিক শক্তিশালী চক্র জড়িত রয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

 

     এ জাতীয় আরো খবর..

আমাদের পত্রিকায় আপনাকে স্বাগতম

সংবাদ খুজছেন… নিচের বক্সে শিরোনাম লিখুন