সন্তানের মুখে মা’ ডাক শোনা হল না রত্নার

মো: একরামুল হক মুন্সী:
আর ক’দিন বাদে কোলজুড়ে সন্তান আসার কথা ছিল নূরুন্নাহার রত্নার। কিন্তু সন্তানের মুখে মা’ ডাক শোনা হলনা তার। প্রাণঘাতী করোনার কাছে হার মানতে হল রত্নাকে। সকলকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে। তার অকাল মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মৃত নূরুন্নাহার রত্নার (৪০) বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার বড়বাড়িয়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সানু মুন্সীর মেয়ে।
শোকার্ত পরিবারের সাথে কথা বলে জানা গেছে, নূরুন্নাহার রত্নার কয়েক দিন আগে করোনায় আক্রান্ত হন। তাকে চিকিৎসার জন্য খুলনা গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ২৪ জুলাই শনিবার রাতে মারা যান। মৃত নূরুন্নাহার রত্না সাড়ে সাত মাসের অন্তঃস্বত্তা ছিলেন। তিনি খুলনার পশ্চিম বানিয়া খামার সরকারি প্রাথমিক কিবদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষিকা হিসাবে শিক্ষকতা করতেন। এছাড়া বয়রা মহিলা কলেজের সাবেক ছাত্রলীগের সহসভাপতি হিসাবে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১১ সালে নড়াইলের করিম হোসেনের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। ২৫ জুলাই রবিবার সকালে নূরুন্নাহার রত্নার মরদেহ  গ্রামের বাড়িতে পৌঁছালে পিতৃালয়ের পারিবারিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে মৃত নূরুন্নাহার রত্নার চাচাতো ভাই মুন্সী মো. নাহিদুজ্জামান জানান, রত্না একজন অসামান্য প্রতিভার অধিকারী ছিলেন। রাজনীতির পাশাপাশি একজন আবৃত্তি শিল্পী ছিলেন তিনি। সদালাপী , মিষ্টভাষী ও তার মতো একজন পরপোকারী মানুষকে এভাবে অকালে চলে যেতে হবে কখনো ভাবতে পারিনি।

 

     এ জাতীয় আরো খবর..

আমাদের পত্রিকায় আপনাকে স্বাগতম

সংবাদ খুজছেন… নিচের বক্সে শিরোনাম লিখুন